মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

প্রশাসকের বার্তা

বাণী

দিনাজপুর জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে দেশ বাসীকে জানাই আমত্মরিক অভিনন্দন। পূর্ণভবা নদীর তীর ঘেঁষে বরেন্দ্র অঞ্চলের ঐতিহাসিক আদিভূমি ও প্রত্নতাত্বিক সমৃদ্ধিময় পৌরাণিক কাহিনীর দেশ হিসেবে খ্যাত দিনাজপুর জেলা। বাংলার শস্য ভান্ডার হিসেবে পরিচিত ও খনিজ সম্পদে ভরপুর এ জেলা। এ খানেই অবস্থিত চেহেলগাজীর মাজার, ঐতিহাসিক কামত্মজিউ মন্দির, ইতিহাসখ্যাত মহারাজার বাড়ী, দিনাজপুর রাজবাড়ী, রামসাগর, সীতাকোট, বালি­কীমুনির ঢিবি/থান, স্বপ্নপূরী, কঠিন শীলা, কয়লা খনি, তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র  ও উত্তর বঙ্গের বিসত্মীর্ণ এলাকা নিয়ে গঠিত নবাব শাসিত ‘‘ ঘোড়াঘাট সরকার’’ এর শেষ নির্দশন ঘোড়াঘাট দূর্গ ও ঐতিহাসিক সুজা মসজিদ। এ জেলায় রয়েছে ১১টি সম্প্রদায়ের মজবুত সামাজিক মেল বন্ধন ও সম্প্রীতি।

নিজ অধিক্ষেত্রে উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডে অগ্রণী ভূমিকা পালন করলেও জেলা পরিষদ একটি সেবা মূলক প্রতিষ্ঠান । নিজস্ব তহবিল ও বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচীর অর্থ তহবিল থেকে উন্নয়ন ও সেবা মূলক কর্মকান্ড পরিচালিত হয়। আত্ম কর্ম সংস্থান সৃষ্টির জন্য বিভিন্ন ধরনের প্রশিক্ষণ কর্মসূচী গ্রহণ, দারিদ্র বিমোচন ও নারী উন্নয়ন, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে জনগণকে সচেতন করার মানসে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ/ইন্টারনেট ব্রাউজিং-এর সুযোগ সৃষ্টি করা, স্কুল-কলেজ,মাদ্রাসাসহ অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার সরবরাহ ও প্রশিক্ষণে সহযোগিতা দান, ক্ষুদ্র ব্যবসায় সুযোগ সৃষ্টি করা এবং অবকাঠামোগত উন্নয়ন ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নমূলক কর্মসূচী গ্রহণ। এ ছাড়াও দুর্যোগকালীন আর্ত মানবতায় সেবা দান কর্মসূচী, দরিদ্র শিক্ষার্থীদের বৃত্তি দান, চিকিৎসা দানে ও দরিদ্র কন্যা বিবাহ দানে আর্থিক সহায়তা করা জেলা পরিষদের অন্যতম কাজ ।

 সে লক্ষ্যে এ প্রতিষ্ঠানটি নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। সকলের সার্বিক সহযোগিতা পেলে আগামী দিনে জনগনের আশা আকাঙ্খার বেশী বেশী প্রতিফলন ঘটাতে সক্ষম হবে দিনাজপুর জেলা পরিষদ - এ আমার প্রত্যাশা।

 

 

          আজিজুল ইমাম চৌধূরী

                প্রশাসক।